বিশ্বজিৎ দাস : বোলপুরের বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ে সাসপেন্ড হলেন অর্থনীতির অধ্যাপক। এই বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতির অধ্যাপক সুদীপ্ত ভট্টাচার্য বিশ্ববিদ্যালয়ের বেনিয়ম ও দুর্নীতি নিয়ে সবচেয়ে বেশি সোচ্চার হয়েছিলেন।

অধ্যাপক সুদীপ্ত ভট্টাচার্য বিশ্বভারতীর দুর্নীতি নিয়ে একাধিক চিঠি লিখেছিলেন প্রধানমন্ত্রী ও রাষ্ট্রপতিকে। সম্প্রতি পাঠভবনের অধ্যক্ষের নিয়োগ নিয়ে একই অভিযোগ আনেন তিনি। সেই কারণেই তাঁকে সাসপেন্ড করা হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।

গত বৃহস্পতিবার বৈঠকে বসে বিশ্বভারতীর সর্বোচ্চ নিয়ামক সংস্থার কর্মসমিতি। সেখানে উপস্থিত ছিলেন উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তী, কমিটির সদস্য দুলালচন্দ্র ঘোষ, মঞ্জুমোহন মুখোপাধ্যায়, বোধিরূপা সিনহাসহ অনান্যরা। এদিন মূলত দুটি বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়। একটি অধ্যাপক সুদীপ্ত ভট্টাচার্যের সাসপেন্ড ও অধ্যাপক সুতপা মুখোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে কমিটি গঠন।

সম্প্রতি বিশ্বভারতীর অধ্যাপক সংগঠন VBUFA’র সভাপতি তথা অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক সুদীপ্ত ভট্টাচার্য পাঠভবনের অধ্যক্ষ তথা কর্মসমিতির সদস্য বোধিরূপা সিনহাকে পাঠভবনের অধ্যক্ষ পদে নিয়োগ নিয়ে প্রশ্ন তুলে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, কেন্দ্রীয় শিক্ষামন্ত্রী, রাজ্যপাল এবং উপাচার্যকে চিঠি দিয়ে ছিলেন।

বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ এই অধ্যাপকের সাসপেনশনের চিঠিতে উল্লেখ করেছে; সেখানে বলা হয়েছে, সুদীপ্ত ভট্টাচার্য এক কর্মীর বিরুদ্ধে সম্মানহানিকর এবং মিথ্যা অভিযোগ এনে বিভিন্ন মাধ্যমে তা ছড়িয়ে দিয়েছেন। তবে এই সাসপেনশনের সিদ্ধান্তের বিশ্বভারতীর একাংশ তীব্র বিরোধিতা করছেন।