চঞ্চল দাশ,কলকাতা:রাষ্ট্রীয় কামধেনু আয়োগ সোমবার জানিয়েছে, আগামী মাসে দীপাবলির জন্য তৈরি হবে ৩৩ কোটি পরিবেশবান্ধব প্রদীপ । এটাকে চীনা প্রদীপের বা আলোর পাল্টা হিসেবে দেখা হচ্ছে।

দেশের গবাদি পশুর সুরক্ষা, প্রচার এবং সংরক্ষণের জন্য ২০১৯ সালে স্থাপিত এই সংস্থা, আগামী উৎসবে গরুর গোবর ভিত্তিক পণ্য ব্যবহারে উৎসাহিত করার জন্য আয়োগ দেশব্যাপী একটি প্রচারাভিযান শুরু করেছে।

আয়োগের চেয়ারম্যান বল্লভভাই কাথিরিয়া( Vallabhbhai Kathiria) এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, “চীনের তৈরি প্রদীপ প্রত্যাখ্যান করে এই প্রচার প্রধানমন্ত্রী এবং স্বদেশী আন্দোলনের ‘মেক ইন ইন্ডিয়া’ ধারণাকে আরও উৎসাহিত করবে।

১৫টিরও বেশি রাজ্য এই প্রচারাভিযানে অংশ নিতে সম্মত হয়েছে। তিনি বলেন, অযােধ্যায় প্রায় ৩ লক্ষ প্রদীপ জ্বালানো হবে, অন্যদিকে উত্তর প্রদেশের বারাণসীতে ১ লক্ষ প্রদীপ জ্বালানো হবে।

দীপাবলীকে সামনে রেখে উৎপাদন ইতিমধ্যে শুরু হয়েছে। আমরা দীপাবলির আগে ৩৩ কোটি প্রদীপ টার্গেট করছি।
আয়োগ বলেছে, যদিও এটি সরাসরি গরুর গোবর ভিত্তিক পণ্য উৎপাদনের সাথে জড়িত নয়, তবুও এটি স্ব-সহায়ক দল এবং উদ্যোক্তাদের ব্যবসা স্থাপনের জন্য প্রশিক্ষণ প্রদান করছে।

এই সংস্থা প্রদীপ ছাড়াও, আয়োগ অন্যান্য পণ্য উৎপাদন প্রচার করছে। যেমন অ্যান্টি রেডিয়েশন চিপ, কাগজের ওজন, গণেশ এবং লক্ষ্মী মূর্তি, ধূপকাঠি, মোমবাতি ইত্যাদি।

কোভিড-১৯ মহামারীর কারণে আর্থিক সমস্যায় রয়েছে, গ্রামীণ ভারতে কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টির পাশাপাশি স্বনির্ভর হতে।এই প্রবণতা পাল্টে দিতে হবে এবং গরু ভিত্তিক কৃষি এবং গরু ভিত্তিক শিল্প সম্পর্কে জনপ্রিয় ধারণা অবিলম্বে সংশোধন করা প্রয়োজন সমাজের সামাজিক ও অর্থনৈতিক পুনরুজ্জীবনের জন্য, বিশেষ করে গ্রামাঞ্চলে দরিদ্রদের জন্য।