বিশ্বজিৎ দাস : বিজেপি সাংসদ সাধ্বী প্রজ্ঞা সিং ঠাকুর আবারও নাথুরাম গডসেকে ‘দেশভক্ত’ বলে বসলেন। গতকালই মধ্যপ্রদেশ পুলিশ মহাত্মা গান্ধীর খুনি নাথুরামের নামে খোলা লাইব্রেরি ‘গডসে জ্ঞানশালা’ বন্ধ করে দিয়েছে।

সেই প্রসঙ্গ তুলে আজ কংগ্রেস সাংসদ দিগ্বিজয় সিং টুইট করে ক্ষোভ উগরে দিয়ে জানান, “নাথুরামকে মহিমান্বিত করার চেষ্টা করছেন যাঁরা, তাঁদের লজ্জা হওয়া উচিত।” সেই টুইটেরই পালটা দিতে গিয়ে ওই মন্তব্য করেন বিজেপি সাংসদ সাধ্বী প্রজ্ঞা।

বিজেপি সাংসদ সাধ্বী প্রজ্ঞা দিগ্বিজয়ের টুইটের প্রতিক্রিয়া দিতে গিয়ে বলেন, ‘‘দেখুন, কংগ্রেস বরাবরই দেশভক্তদের গালাগালি দিয়েছে। উনি আগে ‘গেরুয়া সন্ত্রাসের’ কথাও বলেছেন। এর থেকে খারাপ আর কী হতে পারে?’’

বিজেপি সাংসদ সাধ্বী প্রজ্ঞা এর আগেও সংসদে নাথুরামকে ‘দেশভক্ত’ বলে বিতর্কে জড়িয়েছিলেন। পরিস্থিতি এমন দিকে গড়ায়, ক্ষমা চাইতে বাধ্য হন। এবার তিনি আরও একবার পুনরাবৃত্তির পথে হাঁটলেন।

দিগ্বিজয় সিং তাঁর টুইটে লিখেছেন, ‘‘মহামান্য মদনমোহন মালব্যজি, যিনি মহাত্মা গান্ধীর সঙ্গী ও অনুগত ছিলেন, তিনিই হিন্দু মহাসভার প্রতিষ্ঠাতা। তিনি সর্বভারতীয় কংগ্রেসের তিনবারের সভাপতিও। আর আজ হিন্দু মহাসভার সদস্যরা মহাত্মা গান্ধীর খুনি নাথুরামের প্রশস্তি গাইছে! কিছু তো লজ্জা থাকা উচিত। এর পিছনে কার লুকনো অ্যাজেন্ডা রয়েছে?”