পশ্চিমবঙ্গ সরকার ঘূর্ণিঝড় আম্ফানের ক্ষতিগ্রস্তদের সহায়তার ব্যাপারে ৪০হাজার এর ও বেশি অনিয়মের অভিযোগ পেয়েছে। যার মধ্যে ৩৪ হাজার অভিযোগ সঠিক বলেও প্রমাণিত হয়েছে। রাজ্য সরকারের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা এই তথ্য দিয়েছেন। রাজ্য প্রশাসন ৩৪ হাজার মানুষের ব্যাংক একাউন্টে ২০,০০০ টাকা সাহায্য করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে যাদের বাড়িঘর ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।



ওই ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা জানিয়েছেন, অনিয়মের জন্য দায়ী পঞ্চায়েত প্রতিনিধি এবং ব্লক উন্নয়ন কর্মকর্তাদের (বিডিও) বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার মতে, ঝড়ের ক্ষতিগ্রস্থদের তালিকা, তাদের বিস্তারিত, ব্যাংক একাউন্ট তথ্য এবং যাচাই সম্পন্ন হওয়ার সাথে সাথে তাদের ব্যাংক একাউন্টে এই সরকারি অনুদান প্রদান করা হবে।
প্রশাসনিক সূত্রের খবর, বেশ কয়েকটি জায়গায় ব্যাংক একাউন্ট সিল করার কাজ শুরুও হয়েছে।



জানা গেছে, অযোগ্য ব্যক্তিদের অ্যাকাউন্টে সাহায্যের পরিমাণ সরকারী অ্যাকাউন্টে ফিরে না আসা পর্যন্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেটকে টাকা না দেওয়ার আদেশ দেওয়া হয়েছে।
রাজ্য সরকারের এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার মতে, এ পর্যন্ত অনিয়মের জন্য পাঁচ বিডিওর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। তাদের কাছে শো কজ নোটিশ জারি করা হয়েছে।



ঘূর্ণিঝড় আম্ফানের পর পরই রাজ্য সরকার ১০ লক্ষেরও বেশি মানুষের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে ২০ হাজার টাকা সাহায্য করেছে। বাড়ি মেরামতের জন্য ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য ৬,৮০০ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়। যদিও এই রাজ্যের বিরোধী শিবির সুবিধাভোগীদের তালিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলছে।তবে বিরোধীদের দাবি মান্যতা দিয়েই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, যারা অনিয়ম করছে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here