দেশজুড়ে লকডাউনের পর পরিযায়ী শ্রমিকদের ঘরে ফেরাতে তৎপর হয়নি কেন্দ্র বা কোনো রাজ্য।দেশজুড়ে তীব্র প্রতিবাদের পর সেই সিদ্ধান্ত নিতে এক প্রকার বাধ্য হয়।পরিযায়ী শ্রমিকদের ঘরে ফেরাতে বিরোধীরা সুর চড়িয়েছে বারবার।তবে কেন্দ্রের অমানবিক সিদ্ধান্ত হতবাক করেছিল প্রত্যেকেই।কঠিন পরিস্থিতিতে কাজ হারানো শ্রমিকদের জন্য মুকুব হয়নি রেলভাড়া,প্রবল চাপে পড়ে খানিকটা কমায় কেন্দ্র।যদিও সেটা আহামরি কিছুই না।



তবে শ্রমিক স্পেশাল ট্রেন চালিয়ে রেলের আয় হয়েছে ৩৬০ কোটি টাকা।বিভিন্ন প্রান্তে আটকে পড়া পরিযায়ী শ্রমিকদের নিজের রাজ্যে ফেরাতে স্পেশাল ট্রেন চালু করেছিল ভারতীয় রেল। রেল বোর্ডের চেয়ারম্যান বিনোদকুমার যাদব সোমবারই একটি ভার্চুয়াল সাংবাদিক বৈঠক করেন।



সেখানেই তিনি জানান এই তথ্য। তিনি আরও বলেন, শ্রমিক স্পেশাল ট্রেনে যাত্রীদের ভাড়া দিতে হয়েছে ৬০০ টাকা। যা মেল এক্সপ্রেস ট্রেনের সাধারণ স্লিপার ক্লাসের ভাড়া।যাত্রীপিছু ১৫ শতাংশ ভাড়া রাজ্যই দিয়েছে। তাতেই রেলের আয় হয়েছে ৩৬০ কোটি টাকা।

রেল সূত্রে খবর, ১লা মে থেকে এখনও পর্যন্ত মোট ৪,৪৫০টি শ্রমিক স্পেশাল ট্রেন চালিয়েছে ভারতীয় রেল। প্রায় ৬০ লাখ পরিযায়ী শ্রমিক তাতে নিজেদের ঘরে ফিরেছেন। এখন যে সব শ্রমিক বিভিন্ন রাজ্যে আটকে আছেন, নিজের রাজ্যে ফেরার অপেক্ষায়। তাঁদের সাথে যোগাযোগের সবরকম চেষ্টা চালানো হচ্ছে।



ইতিমধ্যে সুপ্রিম কোর্ট নির্দেশ দিয়েছে শ্রমিকদের ঘরে ফেরাতে।তাই বাড়তি চাহিদার সামাল দিতে রাজ্যগুলির কাছে প্রয়োজনীয়তা জানতে চেয়েছি’। রেলমন্ত্রক সূত্রের খবর, কেরালা, অন্ধ্রপ্রদেশ, কর্নাটক, তামিলনাড়ু, পশ্চিমবঙ্গ, গুজরাত এবং জম্মু ও কাশ্মীরের তরফে আরও কয়েকটি ট্রেন পাঠানোর কথা জানানো হয়েছে।