বেশ কয়েকদিন ধরে আলোচনার কেন্দ্র বিন্দুতে রয়েছেন সোনু সুদ।হ্যাঁ যিনি অভিবাসী শ্রমিকদের নিরাপদে প্রিয়জনদের কাছে ঘরে ফিরে যেতে সহায়তা করছেন।তার এই কাজের সারা দেশের মানুষের মন জয় করেছেন ইতিমধ্যে।লকডাউনের কারণে অভিবাসী শ্রমিকদের কাজ হারিয়েছেন,হাতে টাকা পয়সা নেই অগত্যা পায়ে হাঁটা ছাড়া আর কোনো উপায় নেই।



শ্রমিকদের নিজের প্রিয়জনের কাছে পায়ে হাঁটার মর্মান্তিক দৃশ্য দেশবাসী দেখে।তাই তাদের যাতে হাটতে না হয় এবং লকডাউনের মাঝে আরও বেশি ভোগান্তি না হয় সেজন্য গাড়ির ব্যবস্থা এই অভিনেতার। বেশ কয়েকজন অভিনেতা, রাজনীতিবিদ এবং ক্রীড়া ব্যক্তিত্বরা শ্রমিকদের সুরক্ষার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য সোনুকে প্রশংসা করেছিলেন।

কিছুক্ষণ আগে, মহারাষ্ট্রের রাজ্যপাল, ভগত সিং কোশিয়ারি সোনুকে তাঁর অভিবাসী কর্মীদের প্রতি উত্সর্গ এবং কাজ করার জন্য প্রশংসা করেছিলেন
তারা টুইটও করেছিলেন,তিনি লেখেন যা বিভিন্ন রাজ্য থেকে অভিবাসীদের নিরাপদ পরিবহনের সুবিধার্থে তাঁর রাজ্যের জন্য নিবেদিত কাজে তাকে প্রশংসা করেছিলেন।”



সোনু এই টুইটের জবাব দিয়ে লিখেছিলেন, “স্যার আপনাকে অনেক ধন্যবাদ, স্যার। আপনার কথা আমাকে আরও কঠোর পরিশ্রম করার জন্য অনুপ্রাণিত করে। অভিবাসী ভাই-বোনদের জন্য তাদের পরিবারের সাথে দেখা না হওয়া পর্যন্ত কাজ চালিয়ে যাবেন। সম্মানিত।”এখানেই থেমে থাকেননি সোনু। মঙ্গলবার, সোনু অভিবাসীদের তাদের বাড়িতে পৌঁছানোর সুবিধার্থে একটি টোল-মুক্ত নম্বর চালু করেছিলেন।



একই বিষয়ে কথা বলতে গিয়ে তিনি পিটিআইকে বলেছিলেন, “আমি প্রচুর কল পেয়ে যাচ্ছিলাম … প্রতিদিন হাজার হাজার কল আসছিল আমার পরিবার এবং বন্ধুরা ডেটা সংগ্রহ করতে ব্যস্ত ছিলাম তখন আমরা বুঝতে পেরেছিলাম যে আমরা প্রচুর লোককে মিস করব যা আমাদের কাছে আসতে সক্ষম হবেন না। সুতরাং আমরা এই কল সেন্টারটি খোলার সিদ্ধান্ত নিয়েছি, এটি একটি টোল-মুক্ত নম্বর