বাংলাদেশের সুনামগ‌ঞ্জে অন্যতম বাউল সম্রাট শাহ আবদুল ক‌রিমের শিষ্য রণেশ ঠাকুরের চল্লিশ বছর ধরে সাধনার গানের বই ও বাদ্যযন্ত্রসহ গানের ঘরটাই জ্বালিয়ে দিল দুর্বৃত্তরা।
সূত্রের খবর রবিবার রাতে বাউল শিল্পীর ঘরে আগুন লাগে।সোমবার দিরাই‌ উপজেলার উজানধল গ্রামে ঘটনাস্থলে পুলিশ আসে ।



এসআই জ‌হিরুল ইসলাম জানান, দুর্বৃত্তদের বাউল শিল্পীর দোতারা, বেহালা, হারমো‌নিয়ামসহ গান গাওয়ার সব যন্ত্রপাতি পুড়িয়ে দিয়েছে। ঘটনার তদন্তে নেমেছে পুলিশ,তবে কে বা কারা এই ঘটনার সাথে যুক্ত জানা যায়নি।স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, রণেশ ঠাকুরের বাস ঘরের উল্টোদিকে তার বাউল গানের ঘর। ওখানেই তার ও শিষ্যদের বাদ্যযন্ত্র থাকত। রবিবার ১টার পর রণেশ ঠাকুরের বড় ভাইয়ের স্ত্রী আগুন দেখে চিৎকার করা শুরু করেন।



অন্যরা ঘুম থেকে উঠে দেখেন গানের ঘর চোখের সামনে পুড়ে যাচ্ছে।গ্রামবাসীদের চেষ্টায় শেষ রক্ষা হয়নি,অনেক চেষ্টার পরেও চোখের সামনে তা পুড়ে যায়।ঘটনা প্রসঙ্গে রণেশ ঠাকুর জানান, গ্রামের বা আশপাশের কারও সঙ্গেই তার কোন শত্রুতা নেই। কারা যে এমন ঘটনা ঘটিয়েছে তা তিনি বুঝতেই পারছেন না।অন্যদিকে বাউল সম্রাট শাহ্ আবদুল করিমের ছেলে নূর জালাল জানান, আগুনে রণেশ ঠাকুরের প্রায় চল্লিশ বছরের সাধনার সব যন্ত্রপাতি, গানের বই-পত্র পুড়ে ছাই হয়ে গেছে।