করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়া নিয়ে রাজ্য এবং কেন্দ্রের তরফ থেকে নানা রকমের পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে এই মাসের ১৬তারিখ থেকে ৩১ তারিখ রাজ্যজুড়ে বন্ধ রাখা হয়েছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো। সেই ছুটি বাড়িয়ে এবার করা হলো 15 এপ্রিল পর্যন্ত। আজ নবান্ন-এ সাংবাদিক বৈঠকে এমনই নির্দেশ দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।রাজ্যের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি বন্ধ রাখা হবে আই সি ডি এস ,এম এস কে,এম এস কে স্কুল গুলি।



বাচ্চারা যাতে কোনভাবে ক্ষতিগ্রস্থ না হয় সেদিকে সদা তৎপর রয়েছে রাজ্য সরকার। আর তারই ব্যবস্থা স্বরূপ এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী। সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি বলেছেন যে আইসিডিএস স্কুল যেহেতু বন্ধ রাখা হবে তাই প্রত্যেক বাচ্চা এবং মাকে বাড়িতে দু কেজি করে চাল পৌঁছে দেওয়া হবে। যাতে বাচ্চার মায়েরা রান্না করে বাচ্চাদের খাওয়াতে পারেন। মুখ্যমন্ত্রী এ প্রসঙ্গে আরও জানিয়েছেন গোটা রাজ্যজুড়ে 324005 মানুষের স্ক্রিনিং করানো হয়েছে।



পাশাপাশি 200 কোটি টাকার তহবিল গঠনের চেষ্টা করা হচ্ছে। নিজেকে সুরক্ষিত রাখার নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।পাশাপাশি করোনা মোকাবিলায় যারা কাজ করছেন সেইরকম 10 লক্ষ মানুষের জন্য 5 লক্ষ টাকার অতিরিক্ত বীমা করা হয়েছে। রাজ্য সরকারের তরফ থেকে শপিংমল, চা বাগান, প্রভৃতি তারা যাতে বিশেষ সর্তকতা ব্যবস্থা থাকে সেদিকেও নজর রাখতে বলা হয়েছে।এছাড়াও পাশাপাশি ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান, রিয়েলিটি-শো অডিটোরিয়াম, স্টেডিয়াম, বন্ধ রাখার কথা জানানো হয়েছে।



অফিসে প্রবেশের আগে হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। কোনো ব্যক্তি বা শ্বাসকষ্ট হলে লজ্জা না পেয়ে পরীক্ষা করাতে করার কথা বলা হয়েছে। এবং শিক্ষকদের জানানো হয়েছে যে তারা বাড়িতে বসেই প্রশাসনিক সমস্ত কাজ করবেন।