CAA-NRC এর বিরোধিতা নিয়ে গোটা দেশ যখন উত্তাল ঠিক সেইসময় আরো পারদ চড়ালেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। দেশের প্রতিটি জায়গায় বিক্ষোভ দেখাতে পথে নেমেছে ছাত্র-ছাত্রী থেকে সাধারণ মানুষ। কিন্তু আজ বারানসি এক অনুষ্ঠানে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেন দেশে যেকোন মূল্যেই চালু করা হবে CAA।
সম্প্রতি দেখা গিয়েছে দেশের দুটি বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপি খারাপ ভাবেই হেরেছে কিন্তু তারপরে CAA চালু করা নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর অনড় থাকায় স্বাভাবিকভাবেই উঠছে।

আমাদের ফেসবুক পেজটি লাইক করুন



এদিন প্রধানমন্ত্রী বারাণসীর সভামঞ্চে থেকে বলেন নাগরিকত্ব আইন এবং 370 ধারা বিলোপ অনেক পরিশ্রমের ফসল তাই কোন মূল্যেই তিনি হাতছাড়া করবেন না। এবং তার মতে সিদ্ধান্তগুলি দেশের জন্য অত্যন্ত জরুরী। একদিনের সফরে নরেন্দ্র মোদী বারাণসীতে গিয়েছেন সেখানে দীনদয়াল উপাধ্যায় একটি মূর্তি উন্মোচন করেন, তিনি সেইসাথে পণ্ডিত দীনদয়াল উপাধ্যায় মেমোরিয়াল সেন্টারের আবরণ উন্মোচন করেন, এদিন তার হাত ধরে সূচনা হলো কাশি মহাকাল এক্সপ্রেস সেই সাথে তার উদ্বোধন করার কথা রয়েছে ৪৩০ শয্যা বিশিষ্ট একটি সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালের।



সম্প্রতি সময়ে দিল্লিতে শাহীনবাগে সিএএ আন্দোলন ব্যাপকভাবে প্রভাব ফেলেছে গোটা দেশে এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়াদের মধ্যে। বারানসি সভাস্থল বিরোধীদের একহাত নিলেন তিনি তার বক্তব্য শুধুমাত্র ভোটব্যাঙ্কের জন্যই আন্দোলনকারীদের সমর্থন করে যাচ্ছে দেশের বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলি।

ইতিমধ্যে দেশের বিভিন্ন রাজ্যে দিয়ে বিরোধী প্রস্তাব পাশ হয়ে গেছেন তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য পাঞ্জাব এবং রাজস্থান ও পশ্চিমবঙ্গ।



সম্প্রতি,সামনে বাংলায় পৌরসভা নির্বাচন আর এই পৌরসভা নির্বাচনকে সামনে রেখে এই বাংলার গেরুয়া শিবির রণকৌশল ঠিক করছে এবং একুশে রয়েছে বাংলায় বিধানসভা নির্বাচন সেই নির্বাচনে কিভাবে বিজেপি ঘুরে দাঁড়াবে সেই প্রক্রিয়ায় চলছে বিভিন্ন অংকের সমীকরণ কিন্তু এই সিএএ এনআরসি নিয়ে বাংলায় যথেষ্ট ব্যাকফুটে।এছাড়াও গোটা দেশের যা অবস্থা তাতে করে ঘুরে দাঁড়ানো কতটা সম্ভব হয় সেটা এখন দেখার বিষয়

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here