বানিয়ে ফেলুন তেল কৈ

IMG-20191210-WA0004.jpg

আজ বেঙ্গল কিচেনের অতিথি শতাব্দী দত্ত। তিনি শেখালেন আগে কার দিনের জনপ্রিয় রান্না তেল কৈ। দেখে নিন রেসিপি টাতেল কইউপকরণ: একটু বড় সাইজের কইমাছ (৬ টি), পেঁয়াজ কুচি (১ কাপ), আদা কুচি ( ১ টেবিল চামচ), ৪-৫ টি চেরা কাঁচা লঙ্কা, কাশ্মীরী লঙ্কার গুঁড়ো ( ১ টেবিল চামচ), হলুদ গুঁড়ো ( দেড় চা চামচ) , টমেটো পিউরি( ৩ টেবিল চামচ), নুন স্বাদমতো, সামান্য চিনি, গোটা গরম মশলা ( ১ টেবিল চামচ)। তেজপাতা (২টি), সাহি গরম মশলার গুড়ো (১/২ চা চামচ),‌ সরষের তেল( ১০০ মি.লি.)।সাজানোর জন্য লাগবে ধনেপাতা কুচি।




প্রণালী: প্রথমে কইমাছ গুলি ভালো করে ধুয়ে নুন, হলুদ এবং সামান্য সরষের তেল মাখিয়ে নিতে হবে‌‌। এরপর একটি ননস্টিক প্যানে সামান্য সরষের তেল গরম করে তাতে সামান্য চিনি দিয়ে লালচে হয়ে এলে তেজপাতা ও গোটা গরম মশলা ফোড়ন দিয়ে একে একে পেঁয়াজ কুচি, আদা কুঁচি, চেরা কাঁচা লঙ্কা হালকা আঁচে ভেজে নিতে হবে। এরপর এতে টমেটো পিউরি, হলুদ ও কাশ্মীরি লঙ্কার গুঁড়ো, স্বাদমতো নুন দিয়ে হালকা আঁচে ভালো করে সমস্ত মশলা কষিয়ে নিতে হবে।



তারপর ওই কষানো মশলায় ম্যারিনেটেড কইমাছ গুলি দিয়ে হালকা হাতে এপিঠ ওপিঠ উল্টে মশলার সঙ্গে ভালোভাবে কষিয়ে নিতে হবে। এরপর ঢাকা দিয়ে হালকা আঁচে মাছগুলি সিদ্ধ না হওয়া পর্যন্ত কিছুক্ষণ রান্না করতে হবে। প্রয়োজন হলে সামান্য গরম জল দেওয়া যেতে পারে। তবে সাধারতঃ এই রান্নায় মাছগুলি তেলেই সিদ্ধ হয়। মাছগুলি সিদ্ধ হয়ে‌ এলে ও তেল মশলার থেকে আলাদা হয়ে এলে উপর থেকে সাহি গরম মশলার গুঁড়ো ছড়িয়ে দিলেই তৈরি হয়ে যাবে তেল কই।এবার একটি সার্ভিস প্লেটে ধনেপাতা কুচি দিয়ে সাজিয়ে গরম ভাতের সঙ্গে পরিবেশন করতে হবে ‘তেল কই।’

রন্ধন শিল্পী শতাব্দী দত্ত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top