দেশের প্রতিরক্ষার দায়িত্বে সন্ত্রাসের অভিযোগে অভিযুক্ত প্রজ্ঞা ঠাকুর!

images-23.jpeg

বিজেপি নেতৃত্বাধীন প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংহের নেতৃত্বে যে ২১ সদস্যের কমিটিতে তৈরি করা হয়েছে,তাতে অস্ত্র আইন, এক্সপ্লোসিভ সাবস্ট্যান্সেস অ্যাক্ট এবং ভারতীয় দণ্ডবিধির বিভিন্ন ধারায় অভিযোগ থাকা ভোপালের বিজেপি সাংসদ প্রজ্ঞা ঠাকুর মনোনিত হলেন।স্বাভাবিক ভাবে প্রজ্ঞা ঠাকুরের প্রতিরক্ষা কমিটিতে থাকা নিয়ে সারা দেশে তুমুল সমালোচনার মধ্যে পড়তে হয়েছে কেন্দ্রীয় সরকারকে।



বেশ কয়েক মাস আগে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেছিলেন,ভোপালের এই বিজেপি সাংসদকে কখনও ক্ষমা করবেন না৷ কিন্তু তার পরেই দেশের প্রতিরক্ষার মতো গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে তাকে রাখা নিয়ে যথেষ্ট প্রশ্নের মুখে পড়তে হচ্ছে।
ওপর দিকে কংগ্রেসের প্রতিক্রিয়ায় জানানো হয়েছে,‘সন্ত্রাসের অভিযোগে অভিযুক্ত একজন সংসদ সদস্যকে প্রতিরক্ষা-বিষয়ক কমিটির সদস্য মনোনীত করা হয়েছে৷ যা দেশের জন্য দুর্ভাগ্যজনক৷’’



কংগ্রেসের মুখপাত্র রনদীপ সিং সুরজেওয়ালা এরপরেই ট্যুইট করে লেখেন মোদি হ্যায় তো সব হ্যায়৷
প্রসঙ্গত,২০০৮ মালেগাঁও বিস্ফোরণ মামলায় বেআইনি কার্যকলাপের সাথে যুক্ত থাকার কারণে প্রতিরোধ আইনে অভিযুক্ত হয় এই বিজেপি সাংসদ।তার বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠা অপরাধ বিচারাধীন, যদিও জামিনে মুক্ত রয়েছেন তিনি৷

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top