Logo
News Categories
HomeSportsFootballআলেহান্দ্রর যাদু! ইস্টবেঙ্গল চ্যাম্পিয়নশিপের কাছাকাছি পৌঁছে গেল

আলেহান্দ্রর যাদু! ইস্টবেঙ্গল চ্যাম্পিয়নশিপের কাছাকাছি পৌঁছে গেল

আলেহান্দ্রর যাদু! ইস্টবেঙ্গল চ্যাম্পিয়নশিপের কাছাকাছি পৌঁছে গেল

আলেহান্দ্র মেনেন্ডেজ গার্সিয়া। গত মরশুমে ইস্টবেঙ্গলের নতুন ইনভেস্টর আসার পর ঢাকঢোল পিটিয়ে আনা হয়েছিল স্প্যানিশ এই কোচকে। তারপর গতবছর কলকাতা লীগ উঠেছে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী মোহনবাগানের ঘরে। আইলীগে ইস্টবেঙ্গল দ্বিতীয় স্থানে শেষ করে। সুপার কাপে অংশগ্রহণ করেনি ইস্টবেঙ্গল। ডুরান্ডের সেমিফাইনাল থেকে বিদায় এবং চলতি কোলকাতা লীগ। বারবার ট্রফি জয়ের কাছাকাছি হাতছাড়া করতে হয়েছে। ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের এদিক ওদিকে সমালোচনা বয়ে যাচ্ছে। এক কর্মকর্তা বললেন টোটাল ফেলিয়র। কেউ বললেন বিদেশে কোচিং করিয়েছে নাকি তা নিয়ে সন্দেহ রয়েছে। পিয়ারলেস ম্যাচে হারার পর ক্লাবের সদস্যদের দিকের গ্যালারি থেকে ছুটে আসে আধলা ইঁট। খুব সামনে এসেও আইলীগ হাতছাড়া হওয়ার পর সেট টিম থেকে বেশ কিছু ভরসাযোগ্য খেলোয়াড় চলে গেছেন অন্য ক্লাবে। সব কেমন ওলটপালট হয়ে যাচ্ছিল তাঁর। যা তিনি স্বভাবতই বুঝতে দেননা কাউকে। যদি বলা হয় পাশে কাউকে পাননি? হ্যাঁ পেয়েছেন। ইনভেস্টর কোম্পানি কোয়েসের তরফ থেকে পেয়েছেন সাধ্যমতো সহায়তা এবং শিক্ষিত ইস্টবেঙ্গল সমর্থকদের থেকে পেয়েছেন অবিরাম সমর্থন। এই সম্বল নিয়ে সমস্ত সমালোচনা নীরবে হজম করে নিজের কাজে মনোনিবেশ করেছেন। ভারতীয় প্লেয়ারদের বেশি করে খেলিয়ে তাদের যোগ্যতাকে ক্রমাগত ধার দিয়ে চলেছেন তাঁদের। গোটা দলে অপেক্ষাকৃত কম বয়সের খেলোয়াড়দের সুযোগ দিয়েছেন। তাতে তাঁর চাকরি নিয়েই শুরু হয়েছিল টানাটানি। তবে এক্সপেরিমেন্ট তিনি বন্ধ করেননি। গুটিকতক সমর্থক যারা অসন্তোষ দেখিয়েছিলেন তাঁরাও এখন তাঁর দলের হয়ে গেছেন। তিনি যে স্বপ্নের রূপকার। পিয়ারলেস ম্যাচের পর লীগ বোধহয় হাতছাড়া হয়ে গেলো বলে যারা কপাল চাপড়াচ্ছিলেন তাঁরা আজ খুশির হাসি হাসছেন। কলকাতা লীগ জয়ের খুব কাছাকাছি এসে গেলো ইস্টবেঙ্গল। সমর্থকেরা বলাবলি শুরু করেছে যদি এক্সপেরিমেন্ট করতে করতেই চ্যাম্পিয়ন করতে পারেন তবে হয়তো আইলীগটাও ঘরে আসতে পারে। তাই এই মুহূর্তে মোটামুটি তাঁর সমালোচক এবং সমর্থক সকলেই তাঁকে ঘিরে আশা দেখছেন।

দীর্ঘ আটত্রিশ বছর পর লীগ জয়ের আশা দেখছিল মহামেডান স্পোর্টিং। সেই আশায় জল ঢেলে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার দৌড়ে চলে এল আলেহান্দ্রর ইস্টবেঙ্গল। সামনে শুধু পিয়ারলেস। মহামেডান স্পোর্টিংকে ৩-২ গোলে হারানোর পর ইস্টবেঙ্গলের ১০ ম্যাচে দাঁড়িয়েছে ২০ পয়েন্ট। ৯ ম্যাচে ১৭ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে থাকলেও ইস্টবেঙ্গল চিন্তামুক্ত নয় ইস্টবেঙ্গল। গোলপার্থক্যে এগিয়ে রয়েছে পিয়ারলেস ক্লাব। সামনের দুটি ম্যাচ জিতলেই চ্যাম্পিয়ন হতে পারবে পিয়ারলেস। ইস্টবেলকে জিততে হলে গোলপার্থক্য পিয়ারলেসের থেকে বাড়িয়ে বাকি ম্যাচটা জিততে হবে। এক্ষেত্রে পিয়ারলেস যদি পয়েন্ট হারায় এবং একইসাথে ইস্টবেঙ্গল বাকি ম্যাচটা জিতলেই চ্যাম্পিয়ন হয়ে যাবে।

No Comments

Leave A Comment

error: Content is protected !!