Logo
News Categories
HomeStateমুখ্যমন্ত্রীকে হুঁশিয়ারি বিজেপির

মুখ্যমন্ত্রীকে হুঁশিয়ারি বিজেপির

মুখ্যমন্ত্রীকে হুঁশিয়ারি বিজেপির

পূর্ণিমা কর্মকার: “সাংসদ অর্জুন সিংহকে হত্যা করা হলে বাংলা আর একদিনের জন্যেও শাসন করতে পারবেন না মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়”। এই করা ভাষাতেই মুখ্যমন্ত্রীকে হুঁশিয়ারি দিলেন বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতা কৈলাশ বিজয়বর্গীয়। “ব্যারাকপুরের সাংসদকে হত্যার চেষ্টা করছে রাজ্য প্রশাসন” এমনই অভিযোগ করল গেরুয়া শিবির।


ভোটের পর থেকে উত্তপ্ত ভাটপাড়া, শ্যামনগর ব্যারাকপুর শিল্পাঞ্চলের বিস্তীর্ণ এলাকা। জোড়া ফুলের সঙ্গে পদ্মফুলের সংঘর্ষ তুঙ্গে। সম্প্রতি সম্প্রতি বিজেপি তৃণমূল অশান্তি ঘিরে অশান্ত শ্যামনগর এলাকা। মাথা ফাটে অর্জুন সিং এর তার দাবি ব্যারাকপুর পুলিশ কমিশনারের ইচ্ছাকৃত মারে তার এই অবস্থা। এই ঘটনাকে ঘিরে সম্প্রতি চরম উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে রাজ্য রাজনীতি।



৪ সেপ্টেম্বর বুধবার হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়ে অর্জুন সিং বলেছেন, ” যেদিন থেকে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছি, সেদিন থেকে আমার নামে মামলা করে যাচ্ছে। এখানে সাংসদ বিধায়ক সাংবাদিকের সুরক্ষা নেই। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ক্ষমতার অপব্যবহার করছেন”। এরপরে অর্জুন বলেন, ” মুখ্যমন্ত্রী খুনের ষড়যন্ত্র করেছেন, তার নামে এফআইআর করা হবে।” তৃণমূল ও মমতা প্রশাসনের বিরুদ্ধে মুরলীধর সেন লেন থেকে তোপ দাগেন মুকুল রায়ও। তার দাবি ছিল , ” অর্জুনকে খুন করতে চেয়েছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, তাঁকে অবিলম্বে গ্রেফতার করতে হবে।”


অর্জুন সিং হেনস্থা ইস্যুতে আপাতত পাখির চোখ করেছে পদ্ম শিবিরের নেতারা। মুরলীধর লেন থেকে দিন্দয়াল উপাধ্যায় ভবনের নেতাদের নিশানায় মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল সুপ্রিমো। তৃণমূলের ভিত টলাতে মরিয়া বিজেপি। তাই রাজ্য সরকার প্রতিহিংসাপরায়ণ বিরোধী দলের নেতা-কর্মীদের প্রতি, এই বিষয়টি জনসমক্ষে তুলে ধরতে চাইছে বিজেপি নেতৃবৃন্দ।

No Comments

Leave A Comment

error: Content is protected !!