ভাগাড়ে ধস নামার ফলে দিনভর ব্যাহত আবর্জনা সাফাই

b6b71f4bae3b7feb54fbec8f7f99a0fd-5c8f25aa26b22.jpg

গত কয়েকদিন ধরেই বৃষ্টি হওয়া ধ্বস নামতে শুরু করেছে হাওড়ার বেলগাছিয়া ভাগাড়ে । যার ফলে পরিস্থিতি হয়ে দাঁড়িয়েছে ভয়াবহ। প্রবেশপথ কাদায় ভোরে যাওয়ায় শনিবার আবর্জনা বোঝায় গাড়ি ঢুকতে পারেনি সেখানে। যার জেরে রাস্তার ধারে দাঁড়িয়ে থেকেছে বর্জ্য বোঝাই গাড়িগুলি।

হাওড়া পুরসভা সূত্রের খবর, এদিন সকালে নিচে নেমে আসার সময় পাহাড়ের সমান উঁচু ভাগাড় থেকে চাকা পিছলে একটি আবর্জনা বোঝাই লরি ধাক্কা মারে  ডাম্পারে। বড় দুর্ঘটনার হাত থেকে কোন রকমে বেঁচে যান চালক। তারপর থেকেই জোরকদমে শুরু হয় রাস্তা মেরামতের কাজ।

 অথচ বছর পাঁচেক আগে কলকাতা হাইকোর্ট হাওড়া পুরসভাকে বেলগাছিয়া ভাগাড়ে আবর্জনা  না ফেলার নির্দেশ দিয়েছিল। কিন্তু বিকল্প ভাগাড় তৈরির জমি না পাওয়ায় এখনো পর্যন্ত বেলগাছিয়া ভাগারি আবর্জনা ফেলছে পুরসভা। পুরসভার জঞ্জাল অপসারণ দফতরের এক কর্তা বলেন,” প্রতিদিন প্রায় ৭00 থেকে ৮00 মেট্রিক্টন আবর্জনা ফেলায় ভাগাড়ের পরিস্থিতি বিপদজনক সীমায় পৌঁছে গিয়েছে। গত কয়েকদিন ধরে বৃষ্টি চলায় ছোটখাটো ধস ও নামছে। কাদায় ভরে গিয়েছে ভাগাড়ের রাস্তা।”

হাওড়া পুরসভা সূত্রের খবর, এদিন সকালে পুরো এলাকা থেকে আবর্জনা সংগ্রহ করে আনে যেসব গাড়ি, সেগুলি ভাগাড়ের উঠতে না পেরে রাস্তার ধারে দাঁড়িয়ে যায়। যার ফলে ভ্যাট থেকে আবর্জনা তুলে ভাগাড়ে আনার কাজ প্রায় গোটা দিনে বন্ধ ছিল। এ নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন তৃণমূলের প্রাক্তন মেয়র পরিষদ শ্যামল মিত্র। তিনি বলেন,” আমাদের বোর্ড থাকাকালীন এমন পরিস্থিতি হয়নি। ভ্যাট গুলি আবর্জনা ভর্তি থাকায় ক্ষুব্ধ বাসিন্দারাও।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top