রিয়াঙ্কা রায়: আদালতে জামিন আবেদন প্রত্যাখ্যানের পর সোমবার পাকিস্তানের সাবেক রাষ্ট্রপতি আসিফ আলী জারদারিকে দুর্নীতির অভিযোগে গ্রেপ্তার করা হয়। তিনি ইতিমধ্যেই ন্যাশনাল অ্যাকাউন্টটিবিলিটি ব্যুরো( এন. এ. বি.) এর হেফাজতে রয়েছেন।

 গ্রেফতার করা হয়েছে তাঁর বোনকেও। তাঁদের বিরুদ্ধে কয়েক কোটি টাকার জালিয়াতির অভিযোগ উঠেছে।
এনএবি জানায়, দুই জাল অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে তিনি 150 কোটি টাকার লেনদেন করেছেন।বিরোধী দল পাকিস্তান পিপলস পার্টির (পিপিপি) এই সহ-সভাপতি এবং দেশের প্রথম নারী প্রধানমন্ত্রী বেনজির ভুট্টোর স্বামী এই সময় পার্ক লেন মামলায় গ্রেফতার হন। লন্ডনে তাঁর অবৈধ সম্পত্তি থাকার কথাও জানা যায়।


2007 সালে বেনজির ভুট্টোর হত্যার পর পিপিপির সহ-সভাপতি হন আসিফ আলী জারদারি। ইসলামাবাদ হাই কোর্টে তার অন্তর্বর্তী জামিন আবেদন খারিজ হওয়ার পর তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। গত সপ্তাহে তিনি গ্রেফতার হওয়ার পর প্রথমবার সংসদে হাজির হন এবং গ্রেফতারের অবসান ঘটানোর আহ্বান জানিয়ে বলেন, এই ঘটনাটি জনগণের মধ্যে ভয় সৃষ্টি করা ছাড়া আর কোনো প্রভাবই ফেলতে পারবে না।

আসিফ আলী জারদারি ও তার বোন ফরিয়াল তালপুর ইতোমধ্যে বহু লাখ ডলারের অর্থ বহন করতে এবং বিদেশে পাঠানোর জন্য জাল অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করার অভিযোগের মুখোমুখি হন।উভয়ই গত মাসে গ্রেপ্তার হন এবং উভয়েই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।
দূর্নীতির অভিযোগ তাঁর রাজনৈতিক কর্মজীবনে বারবার ফিরে এসেছে, কিন্তু এই প্রথমবার দোষী সাব্যস্ত হলেন। আসিফ আলী জারদারি, পাকিস্তানের 11 তম রাষ্ট্রপতি 2008 থেকে 2011 পর্যন্ত এই পদে থেকেছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here