মধুমিতা; ২৮ শে জুন : রাজ্যে বিজেপির উত্থান রুখতে ফের দলমত নির্বিশেষে একজোট হওয়ার আহ্বান জানালেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর দাবি, রাজ্যে বিজেপি আসলে বাড়বে জাত-ধর্মের বিভেদ। তাই গেরুয়া শিবিরকে রুখতে শাসকদলের সঙ্গে এক হয়ে লড়তে হবে কংগ্রেস, বাম দলকেও। যদিও, তাঁর সেই ডাকে সাড়া দেয়নি বাকি দুই দল।

বিধানসভায় রাজ্যপালের বক্তব্য ঘিরে তৈরি হওয়া এক বিতর্কের উত্তর দিতে গিয়ে তিনি বলেন, রাজ্য ও রাষ্ট্র উভয় ক্ষেত্রেই সমান্তরাল সরকার চালানোর চেষ্টা করছে বিজেপি। সেই অপচেষ্টা রুখতে এক হতে হবে সমস্ত রাজনৈতিক দলকে।


এই প্রসঙ্গে মমতার মত, “বিজেপিকে ভোট দিয়ে জিতিয়ে আনার পরেই ভাটপাড়া কাণ্ড নিশ্চয়ই চোখ খুলে দিয়েছে সবার। গেরুয়া শিবির পাকাপাকি ভাবে এই রাজ্যে ক্ষমতায় আসলে এরকম আরও ঘটবে। তাই ঘর সুরক্ষিত রাখতে, রাজ্য সুরক্ষিত রাখতে এবং রাজ্যবাসীকে সুরক্ষা দিতে আমাদের জোট বাঁধা অতি জরুরি। তার মানে এই নয় যে, সব দলে ভেঙে একটাই দল গড়ার কথা বলছি। সমস্ত ক্ষেত্রে প্রতিটি রাজনৈতিক দল স্বতন্ত্র হলেও এই এক বিষয়ে আমরা রাজ্য এবং জাতীয় স্তরে একজোট হতেই পারি।”

একই সঙ্গে তিনি শাসকদলের সমর্থনের গুরুত্বের কথা বলতে গিয়ে কংগ্রেসের প্রবীণ নেতা আব্দুল মান্নানকে বলেন, বাংলায় বিজেপিকে রুখতে এই মুহূর্তে শাসকদলের সমালোচনা না করে তৃণমূলের হাত শক্ত করাই সম্ভবত বুদ্ধিমানের কাজ। যদিও প্রতিক্রিয়ায় মান্নান বলেন, রাজনীতি নিয়ে তিনি কোনও পাঠ বা জ্ঞান মমতার থেকে নেবেন না। বাম দলের অন্যতম নেতা এবং বিধায়ক সুজন চক্রবর্তীও সুর মেলান মান্নানের সঙ্গে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here