দূষণ নিয়ন্ত্রণে এবার এই কান্ড করলেন,উত্তরপ্রদেশের সাধুরা

দিন যত এগোচ্ছে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে দূষণ।নানা ভাবে চেষ্টা করা হচ্ছে কিভাবে এই  দূষণ নিয়ন্ত্রণে আনা যায়,তবে এবার তার মুশকিল আসান এ দেশের সাধুদের কাছেই আছে। তারা দূষণ রোধে এবার   যজ্ঞ করার পরিকল্পনা নিয়েছেন, শুধু যজ্ঞ বলা ভুল হবে বলা ভালো মহাযজ্ঞ।ঠিক ই শুনছেন তবে চমকে যাওয়ার মতোই কথা। প্রায় ৫০০ কুইন্টাল আম কাঠ পোড়ানো হবে দূষণ রুখতে।

উত্তরপ্রদেশের মীরাটের শ্রী আয়ুচন্ডী মহাযজ্ঞ সমিতি এই যজ্ঞের উদ্যোগ নিয়েছে।সেই অনুযায়ী গত রবিবার থেকেই মীরাটের ভাইশালী মাঠে যজ্ঞ উপলক্ষে  ৫০০ কুইন্টাল কাঠ ছাড়াও ১০০ কুইন্টাল তিল, ৬০ কুইন্টাল চাল ও ৩০ কুইন্টাল বার্লি , প্রায় ১৫০ বাক্স গরুর দুধ থেকে তৈরি ঘি সহযোগে এই সব কিছু দিয়ে যজ্ঞ হবে। প্রায় ৩৫০ ব্রাহ্মণ উপস্থিত হয়েছেন, ১০৮টি যজ্ঞ কুন্ড তৈরী করা হয়েছে,  ২৬ শে মার্চ পর্যন্ত চলবে। সকাল ৮ টা থেকে সন্ধ্যে ৭ টা পর্যন্ত যজ্ঞ করা হবে।
গরুর দুধের ঘি দিয়ে যজ্ঞের আমকাঠ পোড়ানো হবে। হিন্দুধর্মের বিশ্বাস অনুসারে যজ্ঞ বাতাসকে শুদ্ধ করে,তাই এখন একটু ধোঁয়া হলেও পুড়ে শুদ্ধ বাতাস পাবে শহর। শ্রী আয়ুতচন্ডী সমিতির সহ সভাপতি, গিরিশ বনসল জানিয়েছেন।
উত্তরপ্রদেশের দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদ জানিয়েছেন, এ বিষয়ে তারা  কোনও ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি। যদিও তারা বলছেন, এত পরিমাণ কাঠ একসঙ্গে পোড়ালে দূষণ কমবে না বরং বাড়বে।ধর্মীয় ব্যাপার হওয়ার জন্য এটা আটকাবার কোনো নিয়ম নেই।
তবে দেশের না না প্রান্তে এই কান্ড নিয়ে বিভিন্ন মহলে প্রশ্ন উঠছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top